ঢাকা শহরের দুই হাজার ৬৬৩ পরিচ্ছন্নতাকর্মীর বেতন বাড়ল

886

রোজিনা ইসলাম | মে ১৬, ২০১৩

ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনে দৈনিক মজুরির ভিত্তিতে (মাস্টাররোল) কাজ করা পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের বেতন বাড়ানো হয়েছে। যাঁদের দৈনিক বেতন এখন ১৯৫ টাকা তাঁদের বেতন বাড়িয়ে ২৬৫ টাকা এবং যাঁদের বেতন ২০০ টাকা তাঁদেরটা বাড়িয়ে ২৭৫ টাকা করা হয়েছে।

বেতন বাড়ানোর এ সিদ্ধান্ত আগামী ১ জুন থেকে কার্যকর হবে। প্রত্যেক পরিচ্ছন্নতাকর্মী ব্যাংকের মাধ্যমে এ বেতন তুলবেন। স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে এ খবর জানা গেছে। স্থানীয় সরকার বিভাগের হিসাব অনুযায়ী, ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে দুই হাজার ৬৬৩ জন পরিচ্ছন্নতাকর্মী দৈনিক ভিত্তিতে কাজ করেন।

জানতে চাইলে স্থানীয় সরকারসচিব আবু আলম মো. শহিদ গতকাল প্রথম আলোকে বলেন, এই সেবকদের জীবনমান উন্নয়নের জন্য প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা রয়েছে। দেখা গেছে, ৫০-৬০ বছর কাজ করার পরও এই কর্মীরা কোনো ধরনের অবসর ভাতা বা সরকারের কাছ থেকে কোনো সুযোগসুবিধা পান না। এসব চিন্তাভাবনা করেই তাঁদের জন্য বেতন বাড়ানোর পাশাপাশি একটি নীতিমালা করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, ‘আশা করি সরকারের এসব সিদ্ধান্তের ফলে এই সেবকরা কিছুটা হলেও উপকৃত হবেন। পর্যায়ক্রমে সারা দেশের পরিচ্ছন্নতাকর্মীদেরও এই সুবিধার আওতায় আনা হবে।’

স্থানীয় সরকার বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের কোনো পরিচ্ছন্নতাকর্মী যদি কর্মরত অবস্থায় আহত হন তবে পুরো চিকিৎসার ব্যয় বহন করবে সরকার। এ ছাড়া কেউ নিহত হলে সরকারি প্রাপ্য সাহায্য অনুযায়ী তাঁদের ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে।

পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের কল্যাণে আরও সুযোগসুবিধা বাড়াতে নিয়োগ নীতিমালা প্রণয়নে একটি কমিটি করা হয়েছে। এ কমিটিতে স্থানীয় সরকারসচিবসহ দুই সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা ও তিনজন করে প্রতিনিধি থাকবেন। সূত্রমতে, ২০০ কোটি টাকা ব্যয়ে সুইপার ভবন তৈরির জন্যও কাজ শুরু করেছে সরকার।

জানা গেছে, এর আগে ২০১০ সালে রাস্তার পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের বেতন ১৫০ থেকে বাড়িয়ে ১৯৫ টাকা এবং ট্রাক পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের বেতন ১৫৫ থেকে ২০০ টাকা করা হয়েছিল।